32.8 C
Rajshahi
Tuesday, November 24, 2020
Home সারাদেশ পুঠিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধিকাংশ স্টাফ কোয়াটার ফাঁকা

পুঠিয়ায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধিকাংশ স্টাফ কোয়াটার ফাঁকা

পুঠিয়া প্রতিনিধিঃ পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধিকাংশ স্টাফ কোয়াটার ফাঁকা পড়ে রয়েছে। দীর্ঘদিন থেকে এসব কোয়াটারগুলো পরিত্যক্ত অবস্থায় থাকায় ব্যবহারের অযোগ্য হয়ে পড়ছে। গত দুই যুগের বেশী সময় ধরে এ অবস্থা চলছে। সরজমিনে খোঁজনিয়ে দেখাগেছে, পুঠিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পিছনে স্টাফদের থাকার সুবিদার্থে সরকার মোট ৬টি কোয়াটার নির্মান করেন। এর মধ্যে প্রথম শ্রেণীর কর্মকর্তা ও ডাক্তারদের জন্য স্টাফ কোয়ারটার রয়েছে ২টি, দ্বিতীয় শ্রেণীর কর্মচারীদের জন্য স্টাফ কোয়ারটার ১টি, তৃতীয় শ্রেণীর কর্মচারীদের জন্য স্টাফ কোয়ারটার ১টি এবং চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীদের জন্য স্টাফ কোয়ারটার রয়েছে ২টি। প্রথম শ্রেণীর কেরায়াটারে ১২ জনের মধ্যে থাকেন ৩জন, দ্বিতীয় শ্রেণীর কোয়াটারে ৬ জনের মধ্যে থাকেন ৩জন, তৃতীয় শ্রেণীর কোয়াটারে ৬ জনের মধ্যে থাকেন ১জন এবং চতুর্থ শ্রেণীর কোয়াটারে একটিতে ৬জনের মধ্যে থাকেন ২জন বাকি একটি কোয়াটার দীর্ঘ দিন থেকে কেউ বসবাস না করায় বসবাসের অযোগ্য হওয়া সংস্কারের জন্য প্রক্রিয়াধিন কয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অধিকাংশ স্টাফ স্থানীয় হওয়ার কারণে স্টাফ কোয়াটারগুলো ফাঁকা রয়েছে। এসব স্টাফরা তাদের বাড়ি থেকে অফিস করেন বা যাদের বাড়ি উপজেলার বাহিরে বা অন্যত্র তাদের বেশির ভাগ বেসরকারী বাড়িতে ভাড়া থাকেন বলে জানাগেছে। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মরত অনেকেই জানান, সরকারের সিদ্ধান্ত মতে স্টাফ কোয়াটারের থাকলে তাদের হাউস রেন্টের সবগুলো টাকাই কেটে নেওয়া হয়। অর্থাৎ ব্যাসিকের ৪০ থেকে ৪৫ শতাংশ বাড়ি ভাড়া হিসেবে দিতে হয়। অথচ উপজেলা সদরের একটি বাড়ি ভাড়া নিতে তাদের কর্তনের অর্ধেক টাকায় পাওয়া যায়। একারণে অনেকেই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টাফ কোয়াটারে না থেকে ভাড়া বাসায় থাকেন। এতে প্রতি বছর সরকার ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডাক্তার নাজমা আক্তার জানান, ডাক্তারসহ অধিকাংশ স্টাফ রাজশাহী বা আশে পাশের জেলা শহর থেকে যাতায়াত করেন। এছাড়াও অনেক স্থানীয় স্টাফ থাকায় তারা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টাফ কোয়াটারে থাকেন না। স্টাফ কোয়াটারে থাকার কোন বাধ্যবাধকতা নাই এবং কোয়াটারে থাকলে ব্যাসিকের একটা বড় অংশ হাউজ রেন্ট হিসেবে কেটে নেওয়া হয়। এ কারণে স্টাফ কোয়াটারগুলো ফাঁকা রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

সবাইকে মাস্ক পরার আহ্বান বাদশার

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা সংক্রমণ রোধে ফের সবাইকে মাস্ক পরার আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ও রাজশাহী-২ (সদর) আসনের সংসদ...

নগরীতে ফার্নিচার ব্যবসায়ীদের ঢাকা ব্যাংকের ঋণ বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজশাহী ফার্নিচার শিল্প ক্লাস্টার-এ ঢাকা ব্যাংকের ঋণ বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল রোববার বেলা সাড়ে ১১টায় নগরীর একটি কনফেনশন হলে...

২০২২ সালের মেয়েদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়েছে

এফএনএস স্পোর্টস: মেয়েদের ২০২২ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ৩ মাস পেছানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠেয় এই টুর্নামেন্টটি এখন হবে ২০২৩ সালের...

মেয়েদের লিগে জামালপুর ও নাসরিন একাডেমির শুভসূচনা

এফএনএস স্পোর্টস: মেয়েদের লিগের ফিরতি পর্বে শুভসূচনা করেছে জামালপুর কাচারিপাড়া একাদশ ও নাসরিন ফুটবল একাডেমি। কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে...

Recent Comments