32.8 C
Rajshahi
Thursday, October 21, 2021
Home মহানগর পৌষের আগে রাজশাহীতে শীতের দাপট

পৌষের আগে রাজশাহীতে শীতের দাপট

নিজস্ব প্রতিবেদক: গতকাল শুক্রবারও দিনভর দেখা মেলেনি সূর্যের। কয়েক দিন থেকে রাজশাহীতে বেড়েছে শীত। সঙ্গে পড়ছে ঘন কুয়াশা। আবহাওয়া অফিস বলছে- অগ্রাহায়ণ মাস শেষ পান্তে। সামনে পৌষ, সাধারণত পৌষ-মাঘ মাসে দেশে শীতকাল। দিন দিন তাপমাত্রা কমার সঙ্গে সঙ্গে বাড়বে শীতও।
রাজশাহী আবহাওয়া অফিসের পর্যবেক্ষক লতিফা হেলেন জানান, গতকাল শুক্রবার দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ১৬ ডিগ্রি সেলসি-য়াস। এছাড়া গত বৃস্পতিবারও সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিলো ১৬ ডিগ্রি। এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিলো ২০ ডিগ্রি সিলসিয়াম। সকালে বাতাসের আর্দ্রতা ছিলো ১০০ শতাংশ ও সন্ধ্যায় বাতাসের আর্দ্রতা ছিলো ৯১ শতাংশ। তিনি আরও বলেন, এখন প্রতিদিনই তাপমাত্রা কমছে। তবে দিনের তুলনায় রাতে তাপমাত্রা কমার সাথে সাথে বাড়বে শীত।
গতকাল শুক্রবার দিনভর দেখা মেলেনি সূর্যের। গত বৃহস্পতিবারও সারাদিন দেখা মেলেনি সূর্যের। বেলা ১১টার দিকে নগরীর সড়কে হেড লাইট জ্বালিয়ে যানবাহনগুলোকে চলাচল করতে দেখা গেছে। এছাড়া শীতের কারণে নি¤œ আয়ের মানুষ-গুলোকে পড়তে হয়েছে ভোগান্তিতে। তাদের শীত উপেক্ষা করে জীবিকার তাগিদে কাজের সন্ধানে বের হতে হয়েছে।
সকাল ৮টার দিকে নগরীর বিনোদপুর, গোরহাঙ্গা রেলগেট এলাকায় শ্রমিকদের কাজের সন্ধানে এসে বসে থাকতে দেখা গেছে।
আশরাফ আলী নামের এক শ্রমিক জানায়, তারা প্রতিদিন এখানে কাজের সন্ধানে আসেন। এখন থেকে তারা বিভিন্ন জায়গায় কাজে যান। তিনি আরও জানান, গত কয়েকদিন থেকে বেশ শীত পড়ছে। সকালের দিকে প্রচুর কুয়াশা পড়ছে। কাজে না বের হয়ে উপায় কী? বসে থাকলে তোর আর খেতে পাওয়া যায় না। তাই খুব সকালে তারা এখানে বসে থাকেন কাজের সন্ধানে। যাদের শ্রমিক প্রয়োজন তারা ডেকে নিয়ে যায়।
অন্যদিকে শীতের হিমেল বাতাসে বেকায়দায় পড়েছে রিক্সা-ভ্যান চালকরাও। তাদের যানবাহন খোলা মেলা হওয়ায়, চালকদের শরীরে সরাসরি বাতাস লাগে।
করিম নামের এক রিক্সা চালক জানায়, শীতের সময় সারাদিনই কুয়াশা পড়ে। রিক্সা চালালে বাতাসে শীত লাগে। উপাই নেই, অন্য কোনো কাজ শিখিনি যে করে খাবো। কি শীত, কি বর্ষা, চাকা ঘুরলে টাকা উপার্জন হয়, না হলে নাই।
এদিকে, শীত বাড়ায় গরম পোশাকের বেচাকেনা বেড়েছে। নগরীর বাজার-গুলোতে শীতের পোশাক ক্রেতাদের ভীড় লক্ষ্য করা গেছে। তবে সবচেয়ে বেশি ভীড় ফুটপাতের দোকান-গুলোতে।
নগরীর বিভিন্ন পয়েন্টে শীতের পোশাক বিক্রির অস্থায়ী দোকান বসেছে। এই দোকানগুলোতে নিম্ন ও মধ্য আয়ের মানুষদের শীতের পোশাক কিনতে দেখা গেছে। এছাড়া গণকপাড়ার মার্কেটে শীতের বিভিন্ন পোশাক কিনতে দেখা গেছে। সোয়েটার, কম্বলসহ গরম পোশাক বিক্রেতা রবিন জানায়, গত কয়েকদিনের তুলনায় ক্রেতার উপস্থিতি বেড়েছে। তাই বেড়েছে বেচা-বিক্রিও।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Most Popular

পবায় মডেল পোল্ট্রি খামার প্রতিষ্ঠার জন্য মতবিনিময় সভা

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজশাহীর পবা উপজেলায় কনজুমারস এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) ও প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর, পবা, রাজশাহী এর যৌথ আয়োজনে মডেল খামারী নির্বাচন বিষয়ক...

জনস্বাস্থ্য সুরক্ষায় শীঘ্রই আসছে নীতিমালা

নিজস্ব প্রতিবেদক: খাদ্যে ট্রান্সফ্যাট একটি অযাচিত উপাদান এবং তা নিত্য খাদ্য দ্রব্যের সাথে গ্রহণের ফলে যে সকল স্বাস্থ্যক্ষতি ও মৃত্যু সংঘটিত হচ্ছে...

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ টি-২০ ক্রিকেট চ্যাম্পিয়ন ফাইটার রাজশাহী

নিজস্ব প্রতিবেদক: কুমারপাড়া রাইডার্স কে ১৯ রানে পরাজিত করে রাঙ্গাপরী ১ম বঙ্গবন্ধু টি-২০ গো- কাপ ক্রিকেট প্রতিযোগিতার চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে...

ক্ষুধা-দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে জয়ী হলেই উন্নয়নের মহাসড়কে যাত্রার সাহস আসে : প্রধানমন্ত্রী

এফএনএস: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, কৃষি সমৃদ্ধির উৎকর্ষে খাদ্য নিরাপত্তার স্বস্তি আসে। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যের বিরুদ্ধে সংগ্রামে জয়ী হলেই কেবল উন্নয়নের মহাসড়কে...

Recent Comments